সিলেটের মাধবকুণ্ডে স্থাপন হচ্ছে ক্যাবল কার, উড়ে উড়ে দেখবেন পর্যটকেরা

car-20211211214711.jpg

দেশের সর্ববৃহৎ প্রাকৃতিক জলপ্রপাত ও দ্বিতীয় বৃহত্তম ইকোপার্ক মাধবকুণ্ডে প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ক্যাবল কার স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে বন মন্ত্রণালয়। এরইমধ্যে ক্যাবল কার স্থাপনের সম্ভাব্যতা যাচাই সম্পন্ন হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায় হলে মোহময়ী এ জলপ্রাপাতটি ক্যাবল কারে চড়ে ‘উড়ে উড়ে’ দেখতে পারবেন পর্যটকরা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ক্যাবল কার স্থাপন করা হলে ভ্রমণপিপাসুদের জন্য পর্যটন এলাকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগের পথ সহজ হবে। সেইসঙ্গে মাধবকুণ্ডে দেশি-বিদেশি পর্যটকের সমাগম বাড়বে। এতে পর্যটন খাতে সরকারের রাজস্ব আয় বাড়বে।

 

এদিকে ক্যাবল কার স্থাপন প্রকল্পের পরিবেশ ও সামাজিক প্রভাব মূল্যায়নের প্রতিবেদন প্রণয়নে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন বন অধিদপ্তর নিয়োজিত পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের (বুয়েট) পরিবেশ ও সামাজিক প্রকৌশলী মোহাম্মদ নূরুল আলম সিদ্দিক। গত শনিবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুরে মাধবছড়া বিট অফিস প্রাঙ্গণে এই সভা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বন বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জ কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস। বিট কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী মোহাম্মদ নূরুল আলম সিদ্দিক, সাংবাদিক আব্দুর রব, মাধবকুণ্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুহিত, স্থানীয় ইউপি মেম্বার ইসলাম উদ্দিন, নবনির্বাচিত ইউপি মেম্বার আব্দুর রব, সুখজিৎ সিংহ, আদিবাসি রিভিশন ডিকার প্রমুখ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দেশের অন্যতম পর্যটন স্পট মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নের মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতের সৌন্দর্য উপভোগ করতে ভ্রমণ পিপাসুরা সারা বছরই সেখানে ভিড় জমান। মাধবকুণ্ডের আশপাশের উঁচু-নিচু সবুজ পাহাড়, বন বাদাড়ের নানা প্রজাতির জীবজন্তু, পাহাড়ি ছড়া, খাসিয়া পল্লি, চা বাগান, গহীন অরণ্যসহ অপরূপ প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগের সঠিক ব্যবস্থা না থাকায় পর্যকটরা শুধু জলপ্রপাত দেখেই ফিরে যান। স্থানীয় সংসদ সদস্য শাহাব উদ্দিন সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর তিনি মাধবকুণ্ড দেশি-বিদেশি পর্যটক আকৃষ্টে অবকাঠামো উন্নয়নে নানামুখি পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। তারই নির্দেশনায় বন মন্ত্রণালয় পর্যটকদের মাধবকুণ্ডের মনোরম দৃশ্য উপভোগের ব্যবস্থা করে দিতে ইকোপার্ক এলাকায় ক্যাবল কার স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণ করেছে।

বন বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জের সহযোগী রেঞ্জ কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস সোমবার বিকেলে বলেন, মাধবকুণ্ডে ক্যাবল কার স্থাপন প্রকল্পের প্রাথমিক কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। পরিবেশ ও সামাজিক প্রভাব মূল্যায়নের (ইএসআইএ) প্রতিবেদন প্রণয়নের অংশ হিসেবে এরইমধ্যে মাধবছড়া বিট অফিসে স্থানীয়দের নিয়ে মতবিনিময় সভা করেছেন। মাধবছড়া বিট অফিস থেকে জলপ্রপাত পর্যন্ত প্রায় ৩ কিলোমিটার এলাকায় ভূমি থেকে ৭০-৮০ ফুট উপর দিয়ে ক্যাবল কার চলাচলের পরিকল্পনা নিয়ে কার্যক্রম চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top

প্রধান সম্পাদক: নজরুল ইসলাম শিপার
সম্পাদক:কামরুল হাসান জুলহাস

বক্স ম্যানশন, ৩য় তলা, বন্দর বাজার, সিলেট-৩১০০।
০১৭২০-৪৪৫৯০৮
news.talashbarta@gmail.com