কারও মাস্ক ঝুলছে থুতনিতে, কেউ রেখেছেন পকেটে

masss.jpeg

দেশে আবারও করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। পাশাপাশি আছে অমিক্রনের সংক্রমণ। এগুলো রোধে সরকার বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। কিন্তু বিধিনিষেধের পরও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার সর্বত্র উপেক্ষিত রয়েছে স্বাস্থ্যবিধি। গণপরিবহনগুলোতেও একই চিত্র দেখা যাচ্ছে।

স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে গাদাগাদি করে তোলা হচ্ছে যাত্রী। সঙ্গে চালক-সহকারী এবং বাসে ওঠা যাত্রীদের মধ্যে মাস্ক ব্যবহার নিয়েও রয়েছে অনীহা। আর যাদের আছে, তাদের কারও মাস্ক থুতনিতে, কেউ রেখেছেন পকেটে। দুই একজন আবার পরেছেন। বাসে নেই হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) জগন্নাথপুর বাজার, হসপিটালের পয়েন্ট, ভবের বাজার, মিরপুরসহ কয়েকটি সড়কের বাসে ঘুরে এসব চিত্র দেখা গেছে।

জগন্নাথপুর বাস টার্মিনাল থেকে একটু সামনে আফছানা এন্টারপ্রাইজ চালকের সহকারী যাত্রী তোলার জন্য হাঁকডাক দিচ্ছেন। অথচ বাসে উঠে দেখা যায় প্রতিটি সিটে যাত্রী বসা। কয়েকজন দাঁড়িয়েও রয়েছেন। এদের বেশিরভাগেরই মুখে মাস্ক পরা নেই। আর মাস্ক পরাদের মধ্যে বেশিরভাগই মুখ থেকে খুলে থুতনিতে ঝুলিয়ে রেখেছেন।

মাস্ক না পরা রুবেল নামের এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা হয়। রুবেল জানান, দীর্ঘ সময় মাস্ক পরে থাকতে সমস্যা হয় তার। সেজন্য মাঝে মধ্যে খুলে রেখেছেন।

একইস্থানে সোহাগ পরিবহনে উঠে দেখা যায়, চালকের সহকারী মাস্ক না পরেই গেটে দাঁড়িয়ে যাত্রী তুলছেন।

জানতে চাইলে এ সহকারী বলেন, সারাদিন গাড়িতে থাকি। গরমের কারণে সবসময় মাস্ক পরা যায় না। তাছাড়া মাস্ক পরে কথা বলতে সমস্যা হয়।

জগন্নাথপুরে কয়েকটি বাসে উঠে দেখা যায় একই চিত্র। গাদাগাদি করে যাত্রী ওঠানো হয়েছে। অনেকেরই মুখে মাস্ক নেই।

পাবেল নামের এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, সিলেট যাবেন। মাস্ক মুখে না পরে থুতনির ওপর কেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, সবসময় পরে থাকলে দম বন্ধ হয়ে যায়।

জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাজেদুল ইসলাম বলেন, করোনার শুরু থেকে প্রশাসন মাঠে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে আমরা আক্রান্ত হয়ে হোম আইসোলেশনে রয়েছি। কিন্তু আমাদের পক্ষ থেকে বিধিনিষেধ মেনে চলতে জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন সংবাদকর্মী, জনপ্রতিনিধিরা। সুস্থ হয়ে উঠলে বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি উপজেলবাসীর প্রতি নিজ দায়িত্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top

প্রধান সম্পাদক: নজরুল ইসলাম শিপার
সম্পাদক:কামরুল হাসান জুলহাস

বক্স ম্যানশন, ৩য় তলা, বন্দর বাজার, সিলেট-৩১০০।
০১৭২০-৪৪৫৯০৮
news.talashbarta@gmail.com