দেশেই আছেন আনভীর, অংশ নিলেন শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের নির্বাচনে

119659.jpeg

দেশেই আছেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর। কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়ার আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে অভিযুক্ত এই ব্যবসায়ী দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন এমন খবর বেরিয়েছিল। তবে মুনিয়ার মৃত্যুর এক মাস পর জনসমক্ষে দেখা গেল তাকে, একটি ফুটবল ক্লাবের নির্বাচনেও অংশ নিয়েছেন।

শনিবার (২৯ মে) শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেডের ২০২১-২৪ বর্ষের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে তিনি উপস্থিত ছিলেন। এরপর উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে ক্লাবের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে মতবিনিময়ও করেন। এই সময় আনভীরকে ছাইরঙা টুপি, কালো সানগ্লাস, কালো মাস্ক, কালো টি-শার্ট ও গাঢ় নীল প্যান্ট পরিহিত বসা অবস্থায় দেখা যায়।

উল্লেখ্য, গত ২৬ এপ্রিল রাতে রাজধানীর গুলশানের অভিজাত ফ্ল্যাটে কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়ার মৃত্যুর ঘটনায় ‘আত্মহত্যার প্ররোচনা’ মামলায় একমাত্র অভিযুক্ত আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীর। ঘটনার পর তার দেশে অবস্থান সম্পর্কে ধোঁয়াশা তৈরি হয়। একটি কার্গো বিমানে করে তিনি দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন বলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলেও তার সম্পর্কে কোনো তথ্যই দিতে পারেননি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

মুনিয়ার মৃত্যুর ঘটনার তদন্ত চলছে। এই সময়ে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মুনিয়ার ফ্ল্যাটে আনভীরের যাতায়াতের প্রমাণ তারা পেয়েছেন। এ ঘটনায় আনভীরের কোনো বক্তব্য কোনো গণমাধ্যমই পায়নি। আনভীরের অবস্থান সম্পর্কে সে সময় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী দাবি করেন, “আনভীরের দেশত্যাগের বিষয়ে পুলিশের কাছে কোনো তথ্য নেই।” আসামি আনভীর কোথায় আছেন?—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, “অভিবাসন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আসামি (আনভীর) বাংলাদেশে আছেন। তিনি দুটি (বাংলাদেশ ও স্লোভাকিয়া) পাসপোর্ট ব্যবহার করেন। ওই পাসপোর্ট ব্যবহার করে দেশত্যাগের কোনো রেকর্ড নেই।”

এদিকে, গত ২৯ এপ্রিল আনভীরের স্ত্রী-সন্তান ও পরিবারের কয়েক সদস্য ভাড়া করা বিমানে দেশ ছেড়েছেন—এমন খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ ও অভিবাসন পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানান, ফ্লাইটটি ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওনা দেয়। এটির গন্তব্য দুবাইয়ের আল মাকতুম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।

মুনিয়ার আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় গত ২৭ এপ্রিল সায়েম সোবহানের ওপর দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন আদালত। এর প্রেক্ষিতে আগাম জামিনের আবেদন করেন আনভীরের আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী। তবে সেই জামিন শুনানি স্থগিত করেন আদালত।

আলোচিত এই মামলায় আনভীরকে গ্রেপ্তারের দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে নানা কর্মসূচি পালন করে অনেকগুলো সামাজিক সংগঠন।

উল্লেখ্য, মোসারাত জাহান মুনিয়ার মৃত্যুর পর এ ঘটনায় বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরকে আসামি করে মামলা করেন মুনিয়ার বোন নুসরাত জাহান। মামলার এজাহারে বাদী বলেন, মিরপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী মোসারাত জাহান মুনিরা। দুই বছর আগে মুনিরা ও আনভীরের মধ্যে পরিচয় হয়। এরপর থেকে তারা বিভিন্ন রেস্তোরাঁয় দেখা করতেন। তাদের প্রায় সময় মোবাইল ফোনে কথা বলতেন। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

মুনিয়ার মৃত্যুর ঘটনার পর থেকে আনভীরকে পাওয়া যাচ্ছে না, গণমাধ্যমে এ খবর প্রকাশ হয়। তিনি দেশ বা বিদেশে আছেন, সে বিষয়েও কেউ সঠিকভাবে অবগত নন। এই আলোচনার সময়ে দীর্ঘদিন লোকচক্ষুর অন্তরালে থাকার পর শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র লিমিটেডের নির্বাচনের দিন জনসমক্ষে এলেন আনভীর।

সায়েম সোবহান আনভীর শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র লিমিটেডের বিগত কমিটির চেয়ারম্যান এবং শনিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে কাস্টিং ভোটের শতভাগ পেয়ে ফের পরিচালক পদে নির্বাচিত হয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top

প্রধান সম্পাদক: নজরুল ইসলাম শিপার
সম্পাদক:কামরুল হাসান জুলহাস

বক্স ম্যানশন, ৩য় তলা, বন্দর বাজার, সিলেট-৩১০০।
০১৭২০-৪৪৫৯০৮
news.talashbarta@gmail.com