সিলেটে কঠোর নজরদারি,চলছে লকডাউনের দ্বিতীয় দিন

Screenshot_17.jpg

করোনা পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু হওয়ায় বৃহস্পতিবার থেকে জারি করা লকডাউনের দ্বিতীয় দিন আজ শুক্রবার (২ জুলাই)। লকডাউন বাস্তবায়নে এবার সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সব অফিস সাত দিনের জন্য বন্ধ রয়েছে।

কঠোর বিধি নিষেধ বাস্তবায়নে গতদিনের মতো আজও মাঠে রয়েছে পুলিশ, র‌্যাব ও সেনাবাহিনী। তারা সিলেটের বিভিন্ন পয়েন্টে টহল দিচ্ছেন। গাড়ি দাঁড় করিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। সদুত্তর দিলে গন্তব্যে যেতে পারছেন অন্যথায় আইনানুগ ব্যবস্থার নেয়ার পাশাপাশি তাদের ঘরে ফিরিয়ে দিতে দেখা গেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। শুক্রবার (২ জুলাই) সকালে সিলেটের সড়কে লোকজন কম দেখা গেছে। এছাড়া সকাল থেকে বৃষ্টি হওয়ায় অনেকেই প্রয়োজন থাকলেও ঘর থেকে বের হননি। সেই সাথে রিকশা আর মোটরসাইকেল ছাড়া অন্যান্য যানবাহন নেই বললেই চলে।

খোঁজ নিয়ে জানা আছে, সিলেটের মাছ ও বিভিন্ন কাঁচাবাজারে শুক্রবার (২ জুলাই) সকালে লোকজনের উপস্থিতি ছিল। ছুটির দিন সকালে নগরবাসীর অনেকেই বাজার করে থাকেন। কঠোর লকডাউন কার্যকর করতে পুলিশ, বিজিবির পাশাপাশি সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের তত্ত্বাবধানে সিলেটের বিভিন্ন স্থানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে। চলমান লকডাউন অমান্য করে প্রথম দিন অযৌক্তিক কারণে বাইরে বের হওয়ার অভিযোগে সিলেট মহানগরীসহ ১৩টি উপজেলায় ৩৩টি মোবাইল টিম অভিযান পরিচালনা করেছে। সিলেট নগরী ও সিলেটের বিভিন্ন উপজেলায় ২২০টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই সাথে ২ লাখ ১১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) এসব অভিযান পরিচালনা করে সিলেটের প্রশাসন ও পুলিশ।

জানা গেছে, সিলেটের প্রশাসনের উদ্যোগে যথাযথভাবে লকডাউন পালন ও স্বাস্থ্য বিধি অনুসরণ নিশ্চিত করতে বৃহস্পতিবার সারাদিন ব্যাপী সিলেট মহানগর ও সকল উপজেলায় ৩৩ জন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট একযোগে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে ১৭২ টি মামলা ও ২ লাখ ৬’শ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া লকডাউনে বিধি নিষেধ অমান্য করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সিলেট মহানগর পুলিশ নগরীর বিভিন্ন স্থানে এবং সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতে সর্বমোট ২৫ জনকে ১১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এসময় পুলিশের অভিযানে সিএনজি অটোরিকশা ৯ টি, মোটরসাইকেল ৩০টি, প্রাইভেট কার ২টি ও অন্যান্য ৭ টি মামলাসহ সর্বমোট ৪৮টি মামলা করা হয়। এবং সিএনজি অটোরিকশা ১৮ টি, মোটরসাইকেল ৫৯ টি, প্রাইভেট কার ৩ টি, অন্যান্য ২৪টি সহ মোট ১০৪ টি গাড়ি আটক করে পুলিশ।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার আশরাফ উল্যাহ তাহের বলেন, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক দল লকডাউন বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। টহল পুলিশের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট বসিয়ে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। সেই সাথে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের তত্ত্বাবধানে মাঠে কাজ করে যাচ্ছে একাধিক টিম। কেউ লকডাউন না মেনে বাহির হলে তার বিরুদ্ধে নেয়া হচ্ছে জরিমানার পাশাপাশি আইনী ব্যবস্থা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top

প্রধান সম্পাদক: নজরুল ইসলাম শিপার
সম্পাদক:কামরুল হাসান জুলহাস

বক্স ম্যানশন, ৩য় তলা, বন্দর বাজার, সিলেট-৩১০০।
০১৭২০-৪৪৫৯০৮
news.talashbarta@gmail.com