করোনায় চিত্রশিল্পী অরবিন্দ দাসগুপ্তের মৃত্যু

122060.jpeg

প্রবীণ চিত্রশিল্পী অরবিন্দ দাসগুপ্ত আর নেই। রোববার (১৮ জুলাই) সকাল ১০টা ২২ মিনিটে সিলেটে  শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তিনি মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন বলে জানা যায়। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও এক ছেলে রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশু ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিইয়েছেন।

যেখানে তিনি লিখেছেন, ‘শ্রদ্ধেয় চিত্রশিল্পী অরবিন্দ দাসগুপ্ত স্যার আমাদের মাঝে আর নেই। শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে আজ সকালে  ১০.২২ মিনিটি তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করছি।”

প্রসঙ্গত, নিভৃতচারী এই চিত্রশিল্পী অরবিন্দ দাস গুপ্ত ১৯৫৩ সালের মার্চ মাসে (২৯মাঘ ১৩৫৭ বাংলা) হবিগঞ্জের আজমিরিগঞ্জের তার মাতুতালয়ে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা স্বর্গীয় নরেন্দ্র চন্দ্র দাসগুপ্ত ও মাতা স্বর্গীয় কুমুদিনী দাসগুপ্ত। সিলেট শহরে বেড়ে ওঠা এ শিল্পী কিশোরীমোহন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে (তৎকালীন কিশোরীমোহন পাঠশালা) প্রাথমিক শিক্ষাজীবন শেষে দি এইডেড হাইস্কুল থেকে ১৯৬৮সালে এসএসসি সমাপ্ত করেন।

পরে বাংলাদেশ চারু ও কারুকলা মহাবিদ্যালয় (বর্তমান চারুকলা ইস্টিটিউট) থেকে ফাইন আর্টসের ওপরে ব্যাচেলর ডিগ্রি নিয়ে বেশ জোরেশোরেই চিত্রকর্ম চালিয়ে যেতে থাকেন। অর্জন করেন জাতীয় পর্যায়সহ বেশ কিছু পুরস্কার। কিন্তু অরবিন্দ দাসগুপ্তের ভেতরে সুপ্ত রয়েছে একটি বাউলকবি মন। হঠাৎ করেই নিভৃতজীবন বেছে নেন তিনি। চলে আসেন সিলেটে। শিক্ষক হিসেবে শুরু করেন নতুন জীবন।

চিত্রশিল্পী অরবিন্দ দাস গুপ্ত মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নিরলসভাবে রুচির দুর্ভিক্ষ তাড়াতে আলোকবর্তিকার ভূমিকা পালন করেছেন। তিনি সিলেট অঞ্চলে চিত্রকলায় কয়েকটি সফল প্রজন্মই দাঁড় করিয়েছিলেন। তার মেধা ও মননে এ অঞ্চলের চিত্রশিল্প পেয়েছে নবপ্রাণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top

প্রধান সম্পাদক: নজরুল ইসলাম শিপার
সম্পাদক:কামরুল হাসান জুলহাস

বক্স ম্যানশন, ৩য় তলা, বন্দর বাজার, সিলেট-৩১০০।
০১৭২০-৪৪৫৯০৮
news.talashbarta@gmail.com